দুষ্টু মিষ্টি ভালোবাসার গল্প

 ভালোবাসার গল্প

হ্যালো বন্ধুরা আমি এই পোস্টে আপনাদের কে একটা সুন্দর রোমান্টিক দুষ্টু মিষ্টি ভালোবাসার  প্রেমের কাহিনী রোমান্টিক মিলনের গল্প শোনাতে চাই । আমি আপনাদের রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প শুনাতে চাই । তো শুনতে থাকুন । রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প এই ছোট গল্প শুনাতে থাকুন।

পারিবারিক ভাবে আমাদের দুজনের বিয়ে হয়েছিল কিন্তু তা আর করা হয়নি । কারণটা ছিল বরের সাথে ভালোবাসা করবো । 

আমাদের দুজনের অনেকটাই মনের মিল আছে আমারও ইচ্ছে ছিল বরের সাথে ভালোবাসা করবো তারও ইচ্ছে ছিল বউয়ের সাথে ভালোবাসা করবে তাই বিয়ের পর আমরা দুজনে চুটিয়ে ভালোবাসা করেছি ।

আমার নাম মামনি আর আমার স্বামীর নাম সুজন সে একজন সরকারি হাই স্কুলের শিক্ষক ওর চাকরির সুবাদে আমরা কলকাতায় থাকি । তাই কথায় কথায় লেকচার দেওয়া তা তার অভ্যাস হয়ে গেছে কেন না প্রতিদিন সে স্কুলে লেকচার দেয় তার জন্য । ‌ একদিন আমি রান্না করছিলাম তখনই সুজন এসে বলল-

ভালোবাসার গল্প

ভালোবাসার গল্প
ভালোবাসার গল্প

এইযে আমার মিষ্টি বউটা কি রান্না করছো?

একটা কচি হাঁসের মাংস করছি বল এখনি দিয়ে দিচ্ছি কড়াই থেকে নামিয়ে?

জানো তুমি হাঁসের মাংস আদা রসুন বেশি করে দিতে হয় একটু ঝাল আর সেই কি ভুনা করতে হয় ।

তুমি যদি এতই জানো তাহলে আজ রান্নাটা আমার বদলে তুমি করে আমায় খাওয়াবে ।

তুমি কি যে বলোনা আমি কি আর তোমার মত অত সুন্দর করে রান্না করতে পারি নাকি।

তাহলে এখানে জ্ঞান দিচ্ছ কেন?

ভালোবাসার গল্প

এই করোনা কালে কলেজ বন্ধ কাকে জ্ঞান দিয়ে বল তাই তোমাকে দিচ্ছি?

দাঁড়াও দেখাচ্ছি মজা।

তার আগে পালিয়ে গেছে বদমাইশটা রাতে খাওয়া শেষ করে রুমে আসলাম আমার উনি ল্যাপটপ নিয়ে বসেছেন আমি কিছু বললে আবার আমার পিছনে লাগবে তাই চুপচাপ ডেসেনটেবিল বসে চুল আঁচড়াতে শুরু করলাম তখন আমাকে দেখে সুজন বলল…..

আমার বউটা দেখিয়ে ঠিকমতো চুলটা বাঁচাতে পারে না মনে হয় ।যেন চুল কিভা…..

চুপ তুমি আর একটা কথা বলবে না সব সময় খালি মানুষকে জ্ঞান দেওয়া আর  জ্ঞান দেওয়া।  নিজের গলার টাই পর্যন্ত আমাকে বেঁধে দিতে হয় আর উনি অন্যকে জ্ঞান দেয় ।

ওটা তো তোমার দায়িত্ব তাই না!

ভালোবাসার গল্প

এই যে মিস্টার বেশি কথা না বলে চুপচাপ ঘুমাও।

এইযে মহারানী আমি যদি ঘুমাই তাহলে তোমাকে জ্বালাবে কে শুনি।

আজকা টান দিয়ে মামনি কে বিছানায় চেপে ধরলাম।

এখন তোমায় কে বাঁচাবে সুন্দরী?

তোমার সব সময় ফাইজলামি, ছাড়ো বলছি?

এই ভাবে দেখতে দেখতে কেটে গেল আমাদের একটা বছর তাই আজ আমাদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী । মামনি আজ সুজনকে সারপ্রাইজ দিবে তাই সে কলেজ থেকে আসার আগেই তাদের রুমটা বেলুন, ফুল আর মোমবাতি দিয়ে সাজিয়ে ফেলেছে সাথে নিজের হাতে কেক তৈরি করলো ।

ভালোবাসার গল্প

বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হয়ে গেল তবু মহারাজের কোন খোঁজ খবর নাই আজকের দিনটা কি সে ভুলে গেল ধুর ভালো লাগেনা কিছু আমার একটা ফোন করে দেখি তো কোথায় আছে সে! এইভাবে মামুনির মনে ব্যাকুল হয়ে উঠেছে।

নাম্বারটা যখনই ডায়াল করতে যাবে তখনই কলিং বেলটা বেজে উঠল দরজা খুলে দেখলাম ফুল হাতে নিয়ে কে যেন দাঁড়িয়ে আছে মুখটা বুঝা যাচ্ছেনা!

happy anniversary mam.!🥀🥀🥀🌹🌹

আমি তো মনে করেছিলাম তুমি ভুলে গেছো।

আজকের দিনটা কিভাবে বলি বলতো। এই শাকচুন্নি টাকে নিজের ঘাড়ে তুলে নিয়েছি আমার নিজের জীবনটাকে তছনছ করার জন্য।

তবে রে?

তুমি একটু দাঁড়াও আমি ফ্রেশ হয়ে আসছি।

এই বলে সে রুমের দিকে গেলো।

ভালোবাসার গল্প

ভালোবাসার গল্প
ভালোবাসার গল্প

ওই মামনি রুমের লাইট বন্ধ কেন আর এত মোমবাতি কে লাগিয়েছে?

আমার সতীন আমি ছাড়া কে আছে যে করবে এসব?

এই না হলে আমার বউ আজকেও বাসরটা হবে মনে হয়।পুরো দিনের ভালোবাসা গল্প 


আবার তুমি শুরু করলে ।

আচ্ছা বাবা সরি এটা নাও আর তাড়াতাড়ি পড়ে এসে।

কি এটা?

নাইট ড্রেস খুলে দেখ কি আছে ততক্ষনে আমি ফ্রেশ হয়ে আসছি,

প্যাকেট খুলে দেখলাম একটা গোলাপি কালারের শাড়ি তার সাথে কিছু রেশমি চুড়ি আর একটা সুন্দর গলার নেকলেস। দেরি না করে রেডি হতে চলে গেলাম কিছুক্ষন পর সুজন এসে ডাক দিল…

কি হলো এখনো হয়নি কি তোমার?

এইতো আমি রেডি এসে গেছি?

আমাকে দেখে সুজন হা করে তাকিয়ে আছে?

এই যে মশাই এভাবে কি দেখছো?

ভাবছি এটা আমার বউ তো নাকি আকাশ থেকে কোন অপ্সরা নেমে এলো?

ভালোবাসার গল্প

আমি পাশের বাসার রাহুলের বৌ।

কি কি কি বললে তুমি?

তো কি বলবো তোমাকে!

তাই বলে তুমি..

হিহিহিহি

এভাবে হেসোনা গো ভালোবাসার নেশা জাগছে মনে আমার।

চোখটা একটু বন্ধ করে দাও আমি না বলা পর্যন্ত খুলবেনা আমি এক্ষুনি আসছি।

ওকে মেরি জান?

এখন চোখ টা খুলতে পারো?

তুমি কখন কখন কেক অর্ডার করে এনেছো?

নাগো আমি নিজের ভালোবাসা দিয়ে বানিয়েছি!

ভালোবাসার গল্প

দেখতে তো অনেক সুন্দর হয়েছে একটা কিন্তু খেতে পারব তো?

আচ্ছা ঠিক আছে তোমাকে খেতে হবে না!

আরে.. আমিতো মজা করছিলাম ! তুমি ভালোবেসে নিজের হাতে বানিয়েছে আমি কি না খেয়ে থাকতে পারি।

তারপরে দুজনে মিলে কেকটা কাটলাম তখন সুজন বলল….

মামনি তুমি আজ আমার জন্য এত কিছু করলে নিজের হাতে, আমি তোমায় কখনো তেমন কিছু তোমায় দেইনি।

যেগুলো পড়ে আছে তাহলে এগুলো কে দিয়েছে আমার বি.এফ।

আজ এই বিশেষ দিনে কি চাও বলো?

বলতে আমার লজ্জা লাগছে 🤭🤭

ভালোবাসার গল্প

তুমি আমায় এখনো লজ্জা পাও হায় রে মোর কপাল।

আমার ছোট্ট দুষ্টু মিষ্টি একটা জুনিয়ার সুজন চাই । যে হবে আমাদের ভালোবাসা সব থেকে বড় উপহার ।

তাহলে আজ থেকে আমাদের ভালোবাসার মিশন শুরু করি কি বলো?

আমি দেখলাম ও হাত দিয়ে মুখ ঢেকে রেখেছে!

আমার বউটা খুব লজ্জা পেয়েছে দাঁড়াও তোমার লজ্জা ভাঙ্গাছি।

এক বছর পর মামনি অপেক্ষার প্রহর গুনে। এবারেও পিরিয়ড হয়ে গেল।

আমি কি কোনদিন মা হতে পারব না কি অপরাধ করেছি হে ভগবান এত বড় কষ্ট কেনো দিচ্ছো আমায়।

ভালোবাসার গল্প

হঠাৎ একদিন মাঝরাতে আওয়াজ কান্নার আওয়াজ শুনতে পেলাম আমি লাইট টা অন করে দেখলাম মামনি ঘরে এক কোনায় বসে বসে কাঁদছে ।তখন সুজন বললো …

কি হয়েছে তোমার এভাবে কাদছো কেন।

আমার মনে হয় কোনদিন মা হতে পারবো না আমি?

কে বলেছে তোমায় আমরা ভালো ডাক্তারের চিকিৎসা করাব এত ভেঙে পড়লে চলবে বলো!

আমি যদি কোনদিন মা হতে না পারি তাহলে আমাকে ছুঁড়ে ফেলে দিওনা সুজন আমি তোমাকে ছাড়া বাঁচতে পারবো না।

ভালোবাসার গল্প

তুমি একটা পাগলি মেয়ে আমি তোমার আছি তোমারই থাকব অনন্তকাল পর্যন্ত ।

তখন সুজন বুঝতে পেরেছে যে মামনি ডিপ্রেশনে ভুগছি কোলে তুলে বিছানায় শুইয়ে দিল ।  মামণিকে কয়েকদিন পর…

মামনি তাড়াতাড়ি তৈরী হয়ে নাও আমরা আজ দুজনে ঘুরতে বেরোবো।

আমার আর ভাল লাগছে না অন্য একদিন যাব!

আমরা এক্ষুনি যাব চলো।

আচ্ছা তুমি বসো আমি তৈরী হয়ে আসছি।

এই বলে আমরা সারাদিন আজ দুজনে খুললাম অনেকটা স্বাভাবিক লাগছে এখন মামনি কে মামুনিকে সময় দিতে হবে নইলে সে আরো ডিপ্রেশনে ভুগবে।

ভালোবাসার গল্প

এই ভাবে দেখতে দেখতে 6 মাস কেটে গেল এই মাসে তার পিরিয়ড হয়নি । টেস্ট করেও কিছু আসেনি কয়েকদিন পর হঠাৎ করে পরের আওয়াজ শুনে ছুটে গেলো সুজন রান্নাঘরের দিকে । এসে দেখলো মামনি সেন্সলেস হয়ে পড়েছে।

তাড়াতাড়ি তাকে হসপিটালে নিয়ে আসলো । বাসাতে ফোন করে সবই বলল । হুট করে মামনি পড়ে গেল কিভাবে?

একটু পরে বেরিয়ে আসলো একজন গাইনি ডক্টর মিসেস সিমলা আক্তার।

ভালোবাসার গল্প

ড. শিমলা বললেন…

আপনি নিশ্চয়ই পেশেন্টের হাসবেন্ড

জি ম্যাম মামনি এখন কেমন আছে?

জি উনি এখন সুস্থ তবে এই সময় কোন আর বেশি বেশি খেয়াল রাখতে হবে আপনাদের । now she is pregnant.

সত্যি কি আমি বাবা হতে চলেছি!

জি !

আমি কি এখন আমার মামুনির সাথে দেখা করতে পারি।

নিশ্চয়ই কিছুক্ষণ পর উনাকে বেঁড এ দেওয়া হবে আপনি ওনাকে কিছুক্ষণ পরেই বাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন।

ভালোবাসার গল্প

আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ ডক্টর সিমলা।

জি

এই বলে তিনি চলে গেলেন । আমি কেবিনের ঢুকতেই দেখলাম অসহায় দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে মামণি দৌড়ে গিয়ে তার কপালে একটা চুমু দিয়ে বললাম….

তুমি মা হতে চলেছ মামনি

তুমি আমাকে মিথ্যে স্বপ্ন কেন দেখাচ্ছ?

আরে বোকা মেয়ে আমি সত্যি কথা বলছি আমাদের ভালোবাসার উপহার হিসাবে আসতে চলেছে আমাদের এই সন্তান।

এটা শোনার পর খুশিতে মামনি চোখ বেয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে আমি বলতে চেয়েও বলতে পারলাম না মামনি ওর মধ্যে আমার বাবা-মা ও মামনির বাবা-মা দুজনই চলে এসেছে সবাই অনেক খুশি এই খুশির সংবাদটা শুনে।

ভালোবাসার গল্প

তারপর মামনি কে বাড়ি নিয়ে আসলাম ও খুবই দুর্বল এতদিন হয়তো ডিপ্রেশনে বুকে যে তার জন্যই সবাই চলে গেল কিন্তু মাকে আর যেতে দেয়নি এই সময় মামুনির কাছে কারো থাকাটা খুবই দরকার তার জন্য।

খুবই যত্ন নেই আমি আর মা । মামুনির মত কোন কাজে হাত লাগাতে দেয় না তাকে।

এই ভাবে দেখতে দেখতে দশ মাস কেটে গেল । 10 মাস পর…

অপারেশন থিয়েটারের সামনে সবাই অপেক্ষা করছিল কিন্তু আমার অস্থির লাগছে একই জায়গায় ঠিক করে দাঁড়াতে পারছি না। সারাক্ষণ মনে চিন্তা জেগে আছে ওরা দুজনে সুস্থ আছে তো নানা টেনসনে ভয় করছে মাথায়। তার কিছুক্ষণ পরেই একটা নাচ বাইরে এল, এসে বলল- 

ভালোবাসার গল্প

অভিনন্দন মশাই আপনার টুইন বেবি হয়েছে ।  তাড়াতাড়ি মিষ্টি আনুন একটা ছেলে আর একটা মেয়ে।

খবরটা শুনে সবাই খুশি মামনিকে কেবিনে দেওয়াতেই আমরা সবাই ছুটে গেলাম তার কাছে।

আমাদের স্বপ্ন আজ পূরণ হয়েছে মামণি । তুমি আমাকে একটা নয় দুটো শ্রেষ্ঠ ভালোবাসার উপহার দিয়েছে। আজ আমি অনেক অনেক খুশি ।

তো ছেলে মেয়ের নাম কি রাখলে।

তুমি বলো সব থেকে বেশি খুশিতো তুমি।

না তুমিই রাখো।

পল্লবী আর প্রলয় কেমন লাগলো বলো।

দারুন। আজকের ভালোবাসার গল্প টি আপনাদের কেমন লেগেছে অবশ্যই কিছু কমেন্ট করে জানাবে।

গল্প টি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন

Leave a Comment