Potita Jokhon Bou Love Story 2022 । পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প

Ajker Alochonar Bisoy Hochhe potita jokhon bou love story 2022 । তো বন্ধুরা আমার গল্পতে আপনারা জানতে পারবেন পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প । ঘরের অভাব ও অনুটানে এক পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী । কিন্তু এক ভালো কোটিপতির ছেলের পাললাই পরে তার সব অভাব ও অনুটানে মিটয়ে দিয়ে এক পতিতা মেয়ের ভালোবাসা পরে গিয়ে বিয়ে করে নিল । তার পর মেয়েটি কি করলো তা দেখতে থাকুন তো বন্ধুরা আমাদের chhota golpo ওয়েবসাইডে আপনাদেরকে স্বাগতম । দেখতে থাকুন এই potita jokhon kotipotir bou টি আর অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

Potita Jokhon Bou Love Story 2022

আমার সারাদিনে কোন কাজ কাম নাই তাই শুধু ঘুরে বেড়ানো আর আড্ডা দেওয়া ছাড়া আর রাত হলে যখন ভেতরের কষ্টগুলো জেগে উঠে আমার মনে তখন মদ-গাঁজা সিক্রেট নেশা করা সেই কাজগুলো ভুলে থাকার চেষ্টা করি । আমার বাবার অনেক বড় ব্যবসা আছে তাই টাকা নিয়ে কখনো কোনো সমস্যায় পড়তে হয় । কিছুদিন আগে আম্মু মারা গেলে আপু নতুন আর একটা বিয়ে করে সৎ মায়ের অসহ্য যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে আমি বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসি ।


আমার পকেট এ অল্প কিছু টাকা আছে আর সেই টাকা থেকে কিছু টাকা দিয়ে এক বোতল মদ আর কয়েকটা সিগারেট কিনে নিয়ে আসলাম আর বাসা থেকে বের হওয়ার পরে আমার এক বন্ধুকে দিয়ে থাকার জন্য একটা বাসা ভাড়া করেছে মদ শেষ করে সিগারেট খেতে খেতে আমি বাসার দিকে যাচ্ছিলাম হঠাৎ আমার সামনে একটা আসলো । ( potita jokhon bou love story )

আমি অনেক সময় ধরে দাড়িয়ে আছি কিন্তু কোন কাস্টমার পাচ্ছি না কি করব কিছুই করতে পারছি না কিছুই বুঝতে পারছি না আবার আমার টাকার খুব দরকার এমন সময় আমি দেখতে পেলাম একটা ছেলে আসছে আমি একটু নিশ্চিত হলাম আগে কখনো এই কাজ করেনি । আজ প্রথমেই পথে নেমেছি জানিনা কিভাবে কাস্টমার কে পটাতে হয় । তাই আমি সরাসরি ছেলেটার সামনে গিয়ে বললাম দেখুন আমার টাকার

খুব দরকার আপনি আমাকে টাকা দিবেন আর তার বিনিময়ে যে কয়বার করবেন, যেভাবে করবেন আমি রাজি আছি আমার নির্দিষ্ট কোন ডিমান্ড নেই । আপনি যা দিবেন তাই আমি নিবো । ( potita jokhon bou love story )


আমি মানুষকে কখনো বিশ্বাস করতে পারবো না এমনকি আমি নিজেকেও বিশ্বাস করিনা সবাই খারাপ আমিও ভালো তা বলছি না আমিও খারাপ বিশ্বাস করা তো অনেক দূরের কথা আমি বিশ্বাস করি শুধু মদ আর সিক্রেট থাকে এ ছাড়া আর কাউকে আমি বিশ্বাস করতে পারি না কারণ শুধুমাত্র এই মদের বোতল আছে কি আমার সব দুঃখ কষ্টগুলো কমে এসেছে কিন্তু আপনাকে আমার খুব ভালো লেগেছে ।

Potita Jokhon Bou

potita jokhon bou, potita jokhon bou love story, potita jokhon kotipotir bou, পতিতা যখন আমার, পতিতা মেয়ের ভালোবাসার গল্প, পতিতা মেয়ের ভালোবাসা, পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী, পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প,
Potita Jokhon Bou


আমি কিন্তু অন্য মেয়েদের মতো না আমাকে আপনি বিশ্বাস করতে পারেন আমি আপনাকে খুশি করতে পারব এটা আমার বিশ্বাস প্লিজ আপনি আমাকে আপনার বাসায় নিয়ে চলেন ।

আমার পকেট এ অনেক টাকা নেই আছে কিছুটা অল্প কিন্তু কিছুদিন যাবত নেশা করার জন্য আমি অল্প অল্প করে টাকা বাঁচিয়ে রেখে ছিলাম সেখানে অনেকগুলো টাকা রয়েছে ওখান থেকে দিব টাকা আর বেশি চিন্তা না করে আমি মেয়েটাকে আমার বাসায় নিয়ে গেলাম বাসায় নিয়ে আমরা দুজনে সামনাসামনি বসলাম তারপর আমরা নিজেদের মধ্যে পরিচিত হতে লাগলাম মেয়েটার নাম হল দিশা । ( potita jokhon bou )

মেয়েটার কথা বলতে ছিল কিন্তু আমার মেয়েটার কথার দিকে কোন খেয়াল নেই আমি এক দৃষ্টিতে মেয়েটা ঠোঁটের দিকে তাকিয়ে রয়েছি অবশেষে আর মনের তাকে বলে ফেললাম যে আপনার ঠোঁটটা অনেক সুন্দর ।

ছেলেটা আমার ঠোঁটের প্রশংসা করছে তার মানে সে আমার দিকে আসক্ত হয়ে গেছে তার মানে সে আমার সাথে কিছু করবে আর আমাকে টাকা দেবে সেই কথা ভেবে আমি তার নেশাটা পাড়িয়ে দেওয়ার জন্য বললাম তাহলে চলুন বাকি কাজটা সেরে নিই । কিন্তু ছেলেটা আমার কথা কেন জানি মনে হল শুনল না সে আমার দিকে এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলো ।

এভাবে সারারাত কাটিয়ে দিল ছেলেটা শুধুমাত্র আমার দিকে তাকিয়ে থাকে অবশেষে সকাল হয়ে গেলো । তবুও ছেলেটার কোন নড়াচড়া দেখতে পেলাম না ভোরের আলো যখন ছেলেটার চোখে এসে পড়ল তখন ছেলেটা জ্ঞান ফিরল আর সে খাট থেকে উঠে আমাকে হাজার টাকার নোট দিলো । ( potita jokhon bou )

কিন্তু আমি সেটা নিতে তার কাছ থেকে অস্বীকার করলাম ছেলেটা এভাবে করে আমাকে পাঁচ-পাঁচটা হাজারটা নোট দেওয়ার চেষ্টা করল মোট 5000 টাকা কিন্তু আমি টাকাটা নিতে অস্বীকার করলাম । আর ওনাকে বললাম যে দেখেন আমাদের মধ্যে তো এখন পর্যন্ত কিছুই হয়নি আমি কেন এই টাকাটা নেবো আমি এই টাকাটা দিতে পারব না আপনার টাকা আপনার কাছে রাখেন ।

আমরা অনেক সময় একজন অন্যজনকে জড়াজড়ি করতে লাগলাম অবশেষে কোন উপায় না পেয়ে ছেলেটা আমাকে বললো ,
আরে আমাদের মধ্যে কিছু হয়নি তো তাতে কি হয়েছে আজকে হবে তুমি ওই টাকাটা রেখে দাও আজকে রাতে আবার তুমি এসো তখন হবে এবার আমি টাকাটা নিয়ে বেরিয়ে আসলাম বাসা থেকে আসার আগে ছেলেটাকে আমার মোবাইল নম্বরটা দিয়ে দিলাম ।

Potita Jokhon Bou Love Story

আমি ওই মেয়েটাকে সারারাত দেখলাম কিন্তু তার পরেও মনে হচ্ছে যে আমার ওকে দেখে আমার মনটা ভরে নি আবার ওকে দেখে মন চাচ্ছে আমি ওকে ফোন দিয়ে ওর সাথে কথা বললাম ওর খোজ খবর নিলাম মেয়েটাকে একটু খুশি খুশি মনে হল ওর কথা শুনে । আমি আর ওকে কিছু বললাম না আজকে রাতে আসার বিষয়ে যদি ওর মনে চায় তাহলে আসবে আর মন না চাইলে আসবে না কিন্তু একান্ত ওর জরুরী বিষয় । ( পতিতা যখন আমার )

ছেলেটার উদারতা দেখে আজকে আমার মনে অন্য এক রকম অনুভুতি হচ্ছে যে অনুভূতি আমার এর আগে কখনো হয়নি এটা কোন যন্ত্রণা অনুভূতি নয় এটা একটা আনন্দের অনুভূতি আমি বুঝতে পারছি না যে এটা আমার কেন হচ্ছে । তার ওপর আবার ছেলেটা আমার খবর নিল আমার ছেলেটার সাথে কথা বলতে ভালই লাগলো ।

ছেলেটার সুন্দর ব্যবহার হলো আমার সাথে আমাকে আজ রাতে যাওয়ার বিষয়ে কিছুই বলল না অথচ আমি মনে করেছিলাম উনি মনে হয় রাতে যাওয়ার বিষয়ে মনে করিয়ে দিতে ফোন করেছে । আমি সারাদিন বাসার সব কাজ সেরে আবার রওনা দিলাম ছেলেটার বাসার উদ্দেশ্যে ছেলেটা আজ আবার একই কাজ করলো । ( পতিতা যখন আমার )

সারারাত শুধু সে আমার দিকে তাকিয়ে ছিল একটু নড়াচড়া পর্যন্ত করেনি সে সারা রাত । যেমন বলেছিল ঠিক সেইভাবে সকাল করে দিল আজও সকালে সে টাকা দিতে চাইল আমি না নিতে চাইলে আবার কালকের মত একই কথা বলে টাকাটা দিল আমার টাকার দরকার থাকাও আমি টাকাটা নিতে বাধ্য হলাম এইভাবে 15 দিন কেটে গেল প্রতিদিন আমি ওখানে যাই কিন্তু ছেলেটা আমার সাথে কিছুই করে না ।

শুধু সারা রাত আমাকে দেখে কাটিয়ে দেই আবার প্রতিদিন আমার খোঁজখবর নেই ইদানিং এবার আমার উপর অধিকার দেখাতে শুরু করেছে ছোট ছোট বিষয় আমার উপর অভিমান করছে সে ।

Potita Jokhon Kotipotir Bou


আবার আমার মন খারাপ হলে আমার মন ভালো করে দিতে এতে অবশ্য আমার ভালই লাগতো যে কোন ছেলে আছে আমার খোঁজ খবর নাই কিন্তু আমি বিষয়টা বুঝতে পারলাম না ছেলেটা কেন এমন করছে এই 15 দিন আমাকে প্রায় 30 হাজার টাকা মত দিয়েছে তাই আমি সিদ্ধান্ত নিলাম যে আজকে কিছু একটা করতে হবে এমন করে আর থাকা যাবে না ।

আমি নিজে আস্তে আস্তে মেয়েটার উপর অনেক দুর্বল হয়ে পড়েছি আমি মেয়েটাকে মনে হয় ভালোবেসে ফেলেছি সেটা আমি খুব ভাল করেই বুঝতে পারছি যে কিন্তু মেয়েটার মধ্যে আমার জন্য কতটুকু অনুভূতি আছে সেটা আমাকে আর জানতেই হবে কিন্তু কি ভাবে আজকে আবার আমি বৃষ্টিতে ভিজেছি জ্বর আসার খুব বেশি সম্ভাবনা রয়েছে আজকে মেয়েটা আসলে কি করব আমি আমার ধারনার মত হল সন্ধ্যা হওয়ার আগেই আমার জ্বর উঠতে শুরু করল । আমি অনেক কষ্টে মেয়েটার জন্য অপেক্ষা করতে লাগলাম অবশেষে মেয়েটা এসে আমাকে ফোন করলো আমি গিয়ে দরজা খুলে দিলাম । ( potita jokhon kotipotir bou )


আমি মেয়েটার সামনে একজন সাধারণ মানুষ হওয়ার চেষ্টা করলাম কিন্তু আমার মাথা ঘুরে উঠলো আর আমি সেখানে পড়ে গেলাম মেয়েটা দেখতে গিয়ে বুঝতে পারলো যে আমার প্রচন্ড জোরে পুরছে । এইভাবে সে আমার সারারাত যত্ন দিল মাথায় জলপট্টি দিয়ে দিল । আর সকাল হলে সকালের নাস্তা করে সে আমাকে খাইয়ে ছাড়া ঘর মুছে পরিষ্কার করে সে চলে যায় ।


আমার আজকে খুব খারাপ লাগলো ছেলেটা অসুস্থ কিন্তু আমার কেমন যেন মনে হচ্ছে যে আমি নিজেই অসুস্থ অন্যরকম একটা টান অনুভূতি করলাম ছেলেটার জন্য এমনটা আমার জীবনে আগে কখনো হয়নি এই ছেলেটা আমার জীবনে আসার পর থেকেই আমার সবকিছু কেমন যেন অন্যরকম হয়ে যাচ্ছে তাহলে কি আমি ছেলেটাকে ভালোবেসে ফেললাম । ( potita jokhon kotipotir bou )

হ্যাঁ আমি ছেলেটাকে ভালোবেসে ফেলেছি আমার মনে মানে ছিল না ছেলেটা কি করছে খাচ্ছে কিনা এমনি অসুস্থ তাহলে কিভাবে কি করছে এইসব প্রশ্ন আমাকে ছেলেটার কাছে ছুটে যেতে বাধ্য করলো আমি বাসা থেকে আবার টিফিনে করে খাবার নিয়ে ছেলেটার বাসায় দিকে চলে গেলাম ।


আমি বাসায় অসুস্থ হয়ে শুয়েছিলাম হঠাৎ দেখি নিশা বাসায় এসেছে তাও আবার খাবার নিয়ে আমি খেতে চাইলাম না কিন্তু নিশা আমাকে জোর করে খাইয়ে ওষুধ খাইয়ে চলে গেল যাওয়ার সময় আমি বললাম নিসা আজকে অবশ্যই আসবে তোমার সাথে আমার কিছু কাজ আছে নিশা চলে গেল আমি ঘর সাজাতে লাগলাম রাতে নিশা সময় একটু আগেই চলে আসলো নিশা আমাকে বলল আপনার সাথে আমার কিছু কথা আছে আপনি আগে বলবেন নাকি আমি আগে বলবো তখন আমি নিশাকে আগে বলতে বলার জন্য বললাম ।

পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প

potita jokhon bou, potita jokhon bou love story, potita jokhon kotipotir bou, পতিতা যখন আমার, পতিতা মেয়ের ভালোবাসার গল্প, পতিতা মেয়ের ভালোবাসা, পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী, পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প,
পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প


আপনি যে শেষ 15 দিন আমার সামনে নিয়ে বসে থাকেন আপনার শরীরে কি রক্ত মাংসে গড়া না আপনার কোন অনুভূতি নেই নাকি সব ভোঁতা হয়ে গেছে আপনি আমার সাথে কিছুই করেন না কেন কথাগুলো বলার সময় দেখলাম ছেলেটা কাঁদছে আমি আর কিছু তাকে বললাম না এখানেই থেমে গেলাম ।


নিশার এসব কথা শুনে আমার রাগ আর কষ্ট একই সাথে হয়েছিল সেজন্য আমার চোখ দিয়ে পানি পড়তে লাগল তারপরও আমি স্বাভাবিক হয়ে বললাম নিশা তোমার এই রাস্তার আসার কারন কি সে আমাকে উত্তর দিল সেটা জানার কি খুব গুরুত্বপূর্ণ আমি বললাম হ্যাঁ খুবই গুরুত্বপূর্ণ । ( পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প )


আমার বাবা অনেক আগেই মারা গেছে আমার মা মানুষের বাসায় কাজ করে সংসার চালাতে কিন্তু এখন মাও বিছানায় পড়ে গেছে আমার ছোট দুটো ভাই বোন তাদের স্কুলের খরচ আমার ভার্সিটির খরচ আর সংসারের খরচ এইসবের জন্য অনেক খরচ কারো কাছে টাকা চাইলে কেউ আমাকে টাকা দিবে না তাই আমি সিদ্ধান্ত নিলাম যে আমি মানুষের থেকে টাকা নিব তার বিনিময়ে নিজের ইজ্জত বিক্রি করব ।

(To bundhura amader ajker potita jokhon bou ek kotipotir bou love story ta kamon hoyeche niche comment kore janaben)

এই যুগে বিনিময় ছাড়া কিছু হয়না তাই আমাদের কেউ কেউ সাহায্য করবে না তাই এই রাস্তা বেছে নেওয়া । আপনি ছিলেন সেই প্রথম ব্যাক্তি । কিন্তু আপনার সাথে তো আমার কিছুই হলো না আপনি শুধু আমায় টাকা দিয়ে গেলেন আমার থেকে কিছুই নিলেন না ।


দেখো নিশা একটা ছেলে যে অনিমে তো জীবন যাপন করত সে নেশা করত নেশাটাই ছিল তার জীবনে চলার পথের একমাত্র সম্বল সেই নেশাটা তার জীবনের একমাত্র বাস্তব বলে মনে করতো । কিন্তু একদিন সেই ছেলেটার পরিবর্তন হয়ে গেল নেশা করা ছেড়ে দিল পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া শুরু করল জীবনকে নিজের করে সাজাতে লাগলো । কেন জানো সে একজনকে নিয়ে তার বাকি জীবনটা কাটাতে চাইছিল ছেলেটা এই পরিবর্তনের পেছনে ওই মেয়েটার বিরাট ভূমিকা ।

পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী

potita jokhon bou, potita jokhon bou love story, potita jokhon kotipotir bou, পতিতা যখন আমার, পতিতা মেয়ের ভালোবাসার গল্প, পতিতা মেয়ের ভালোবাসা, পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী, পতিতা যখন বউ ভালোবাসার গল্প,
পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী


মেয়েটা ছেলেটার জীবনে আসতেই ছেলেটার জীবন পরিবর্তন হতে শুরু করল ছেলেটা মেয়েটার মনের গভীর থেকে ভালবেসে ফেলেছে কিন্তু ছেলেটা এখনো জানেনা মেয়েটা ছেলেটাকে ভালোবাসে কিনা তাই ছেলেটা জানতে চাই মেয়েটা ছেলেটাকে ভালোবাসে কিনা আমি জানতে চাই নিশা তুমি আমাকে ভালোবাসো কিনা ?

সাগরে কথা শুনে আমি খুশিতে কেঁদে ফেললাম এতদিন সাগর যা করেছে সব আমাকে ভালোবেসে করেছে আর আমি ওকে আজকে কত খারাপ খারাপ কথা শুনালাম আমি কাঁদতে কাঁদতে সাগরের বুকে ঝাপিয়ে পড়লাম। আর ওর কাছে মাফ চাইলাম প্লিজ আমাকে মাফ করে দাও । ( পতিতা মেয়ের জীবন কাহিনী )

আমি তোমাকে না বুঝে অনেক খারাপ কথা বলেছি। আমি তোমাকে অনেক কষ্ট দিয়েছি সাগর আমাকে বুকের সাথে শক্ত করে জড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে বলল আরে পাগলি আমার কাছে তোমার কোন অন্যায় নাই তুমি কাঁদছো কেন। তুমি যদি কাঁদো তাহলে আমি চলে যাব আজকে থেকে তুমি শুধু হাসবে কখনো কাঁদবে না আমি তোমার হাসি মুখ দেখতে অভ্যস্ত কারণ তোমার ওই হাসিটা দেখেই যে আমি তোমার প্রেমে পড়েছি ।

আচ্ছা যাও আমি আর কাঁদবো না কিন্তু সাগর আমার জীবনটাই তো অনেক কষ্টে ভরা তাই আমার জীবনে কান্না ছাড়া তো আর কিছুই নেই ?
আজ থেকে তোমার জীবনে কান্নার দুঃখ থাকবে না আমি থাকতে দিবো না তাদেরকে দরকার হলে আমি নিজে কাঁদবো তাও তোমাকে কাঁদতে দেব না কখনো তুমি সব সময় হাসবে শুধু আমার জন্য ?
এত কেন ভালোবাসো তুমি আমাকে?

কারন আমার যে একটাই তুমি আর আমার সব অনুভূতি জুড়ে শুধুই তুমি শুধুই তুমি?
তুমি আমাকে ছেড়ে কখনো চলে যাবে না তো?
আমি যতদিন বাচবো তোমার হাতে হাত রেখে বাঁচবো আর যত যেদিন মারা যাব সেদিন তুমি নিজে হাতে শুইয়ে দিয়ে আসবে যাতে করে জীবনের শেষ কাজটা তোমাকে পাশে পেতে পারি। ( পতিতা মেয়ের ভালোবাসা )


তুমি যদি একবার এমন কথা বল তাহলে আমি মরে যাব তোমাকে রেখে-
একজন নেশা যদি সাগরের জীবনের সম্পূর্ণরূপে বদলে দিতে পারে তাহলে প্রতিটা মেয়েই আমাদের এক একজন পুরুষের জীবন বদলাতে পারে ।

তো বন্ধুরা Potita Jokhon Bou Love Story 2022 টি এখানে শেষ করলাম। আমাদের আজকের পতিতা মেয়ের ভালোবাসার গল্প টি আপনাদের কেমন লেগেছে অবশ্যই নিচের কমেন্ট করে জানাবেন । আর নিয়মিত এরকম রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প পড়তে চাই পেতে আমাদের সাথে থাকবে।

গল্প টি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন

Leave a Comment